যে কারনে দীর্ঘ ৫ বছরেও বাজার ঘুরে দাঁড়াতে পারেনি!

0
(0)

day1বাজার বিশ্লেষন ঃ- সপ্তাহের শেষ দিন বৃহস্পতিবার ডিএসই ব্রড ইনডেক্সটি ডজি ক্যান্ডেল তৈরী করে প্রায় অপরিবর্তীত থেকে ইনডেক্স ক্লোজ হয়।ডজি ক্যান্ডেল দ্বারা সাধারনতঃ সিদ্ভান্তহীনতাকে বোঝায়।ওর্থ্যাৎ ইনডেক্স কোনদিকে যাবে সেই সিদ্বান্ত নিতে না পারলেই ডজি ক্যান্ডেল তৈরী করে।বাজার পর্যবেক্ষনে দেখা যায় ঈদের আগে ইনডেক্স বুল্লিশ ক্যান্ডেল তৈরী করে টানা উত্তানে থাকলেও ঈদের পর বাজার কখনও বুল্লিশ কখনও বেয়ারিশ আবার কখনও ডজি ক্যান্ডেল তৈরী করে একের পর এক দিক পরিবর্তন করে চলেছে।কোনো ক্যান্ডেলই স্থায়ী হচ্ছে না।এটা বাজারের অস্থিরতারই বহিঃপ্রকাশ।শুধু আজকালই নয় দীর্ঘ ৫ বছর ধরেই বাজারে এরকম অস্থিরতা বিরাজ করছে।বাজার পরিচালনার ক্ষেত্রে অর্থনীতির সূত্রের যথাযত প্রয়োগ না করার ফলেই বাজারের এই বেহাল দশা।কোনো কোনো ক্ষেত্রে দেখা গেছে বাজার ভাল করার নামে অর্থনীতির সূত্রের সাথে সাংঘর্ষিক পদ্বতি অবলম্বন করা হচ্ছে।

ফলে হিতেবিপরীত হচ্ছে।বর্তমান বাজারে প্রধান সমস্যা হচ্ছে চাহিদার তুলনায় যোগান বেশী।অর্থ্যাৎ বাজারে নতুন নতুন আইপিও,রাইট ও বোনাস শেয়ার যুক্ত হয়ে যেই পরিমানে যোগান বাড়তেছে সেই পরিমানে টাকার প্রবাহ বাড়ে নাই।বরং দিন দিন টাকার প্রবাহ কমতেছে ফলে শেয়ার ক্রয়ের চাহিদাও কমতেছে।এদিকে সেকেন্ডারি মার্কেট দীর্ঘ পতনে থাকায় পুজি হারিয়ে অনেকেই শেয়ার ব্যবসা ছেড়ে দিয়েছেন আবার অনেকেই নামে বেনামে শত শত বিও একাউন্ট খোলে আইপিও ব্যব্সা শুরু করেছেন।ফলে আইপিওর মাধ্যমে অনেকেই সেকেন্ডারি মার্কেটের টাকা নিয়ে যাচ্ছেন।এতে সেকেন্ডারি মার্কেটে শেয়ার বাড়লেও টাকা কমতেছে।শেয়ার বেড়ে যোগান বাড়তেছে কিন্তু চাহিদা কমতেছে।চাহিদা যখন কমবে তখন আইটেম গুলোর দরও কমে।২০০৯-২০১০ সালে ২০০ টি আইটেমের মধ্যে লেনদেন হত ১৫০০-২৫০০ কোটি টাকা যা যোগানের চেয়ে চাহিদা অনেক বেশী ছিল ফলে আইটেম গুলোর দর বাড়তে বাড়তে ইনডেক্স ৩০০০ থেকে ৯০০০ উঠেছিল।বর্তমানে বাজারে ৩০০ শতাধিক আইটেমে লেনদেন হচ্ছে মাত্র ৩০০-৫০০ কোটি টাকা।যা চাহিদার চেয়ে যোগান অনেক বেশী।এই লেনদেন দিয়ে সব আইটেমকে সাপোর্ট দেয়া সম্ভব নয় বিধায় প্রায় প্রতিদিনই অধিকাংশ আইটেমের দর কমে।ফলে ইনডেক্স কমতে কমতে ৯০০০ থেকে বর্তমানে ৪৫০০ তে।আইপিও,রাইট এবং বোনাস শেয়ার যুক্ত না হলে এই ইনডেক্স ২৫০০ তে নেমে আসত।এই বাজারে ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীদের প্রফিট করা খুবই জটিল।তবে বড় পুজির বিনিয়োগকারীরা কৌশলে নির্দিষ্ট আইটেমের চাহিদা সৃষ্টি করে ভাল মুনাফা অর্জন করতে পারে।
ফেসবুকে আমাদের পোষ্ট পেতে এখানে এই লিংকে অথবা এই লিংকে ক্লিক করে জয়েন করুন।

Rate This

Average rating 0 / 5. Vote count: 0

No votes so far! Be the first to rate this post.

As you found this post useful...

Follow us on social media!