বাই সেল ট্রেডিংয়ে জিততে হলে আইটেমের আচরনগত গুন দোষ জানার বিকল্প নেই।

0
(0)

car-mechanic-working-auto-repair-service-professional-35581655 শেয়ার ব্যবসা এমন এক ব্যবসা যেখানে পুজির চেয়ে বুদ্বিটাই বেশী খাটাতে হয়।শেয়ার বাজারে প্রফিটের ক্ষেত্রে পুজির চেয়ে বুদ্বিটাই বেশী প্রাধান্য পায়। যেহেতু সম্পদ বা পুজি পারিবারিক উত্তরাধিকারি উৎস থেকে পাওয়া যায় সেহেতু আপনার লাখ লাখ টাকা পুজি থাকতে পারে কিন্তু বুদ্বি না থাকলে সেই লাখ লাখ টাকার পুজির কোনো মূল্য নেই।শেয়ার ট্রেডিং হচ্ছে টাকার নয় বুদ্বির প্রতিযোগীতা।প্রতিটা ট্রেডে একজন হারে আরেকজন জয়ী হয়।ট্রেডিং লড়াইয়ে জয়ী হতে হলে আপনি যার কাছ থেকে বাই দিতেছেন বা যার কাছে সেল দিতেছেন এবং যারা আপনার সাথে একই আইটেম বাই দিতে চায় বা সেল দিতে চায় তাদের চেয়ে আপনার বুদ্বিটা বেশী থাকতে হবে তবেই জয়ী হবেন।ভাবতে পারেন যে,এখানে ক্রেতা বিক্রেতাকে দেখা যায় না তাহলে বোঝবো কিভাবে কার বুদ্বি বেশী।অন্যদের সাথে নিজের বুদ্বির তুলনা করতে আপনার প্রতিদন্ধ্বীকে দেখার প্রয়োজন নেই।আপনার বাই/সেল ট্রেডের সাথে সাথেই বোঝতে পারবেন আপনি কতটা চালক বা বোকা।কেনার ক্ষেত্রে আপনি যত কমে কিনবেন আর সেলের ক্ষেত্রে যত বেশী দরে সেল দিবেন আপনি ততই বুদ্বিমান।অনেকেই মনে করতে পারেন যে কত নামবে বা কত উঠবে সেটা তো কেউ জানে না তাহলে লো রেটে বাই এবং হাই রেটে সেল দিব কিভাবে? আমি বলব হয়তঃ আপনি জানেন না কোথায় নামতে পারে বা উঠতে পারে তবে অনেকেই যার যার আইটেমের আচরনগত দিকটা জানেন।যারা আইটেমের আচরনগত গুন দোষ জানেন তারা সকালে আইটেমটির ট্রেডিং আচরন দেখলেই বিকালে কোথায় নামবে বা উঠবে সেটা অনুমান করতে পারেন।বাজারের প্রত্যেকটা আইটেমেরই নিজস্ব আচরনগত গুন দোষ রয়েছে।যারা যে আইটেমের আচরনগত দিকটা জানে তারা ওই আইটেমে বাই সেলে জয়ী হতে পারে।আর যারা আইটেমের উত্তান পতনের তথা আপ ডাউনের আচরন বিধি জানে না তারা বাই সেল করার সাথে সাথেই আফসোস করতে পারে।যারা প্রতিটা আইটেমের আচরন এবং বাই সেল টাইমিং জানে তারা ১লাখ টাকায় যে প্রফিট করবে যারা আইটেমের আচরন জানে না তারা ১০ লাখ টাকায়ও ওই প্রগিট করতে পারবে না।তাই শেয়ার বাজারে পুজি যাই থাকুক আইটেমের আচরন সম্পর্কে সচেতন থাকাটা অপরিহার্য।

Rate This

Average rating 0 / 5. Vote count: 0

No votes so far! Be the first to rate this post.

As you found this post useful...

Follow us on social media!