নেতিবাচক বাজার ডে ট্রেডারদের কাছে অভিশাপ হলেও সুযোগ সন্ধানী ট্রেডারদের জন্য আশীর্বাদ

0
(0)

car-mechanic-working-auto-repair-service-professional-35581655 আমাদের দেশের শেয়ার বাজার কারো জন্য আশীর্বাদ কারো জন্য অভিশাপ।দীর্ঘ কয়েক বছর যাবত বাজার একটি গোলাকার বৃত্তের মধ্যে গুরপাক খাচ্ছে।এই বৃত্ত থেকে কোনো ভাবেই বাজার বেরিয়ে আসতে পারছে না।ফলে মাঝে মধ্যে স্থিতিশীলতার আভাস দিলেও ২-৪দিন কন্টিনিউ করার পরই আবার সেই আগের রুপে ধারাবাহিক পতন দেখা যায়।গত ৫বছর যাবত মার্কেট এমনই আচরন করতে দেখা যাচ্ছে।অর্থ্যাৎ বছরের বেশীর ভাগ কার্যদিবসেই মার্কেট নেতিবাচক থাকতে দেখা যায়।বাজারের এরকম পরিস্থিতিতে নিয়মিত ট্রেড করে পোর্টপোলিও টিকিয়ে রাখা কঠিন।যত স্মার্ট ট্রেডারই হোক না কেন বাজারের এমন আচরনে নিয়মিত ট্রেড করলে লাভের চেয়ে লোকসানই বেশী হতে পারে।কারন বাজার অধিকাংস কার্যদিবসই নেতিবাচক থাকে এবং নেতিবাচক মার্কেটে পোর্টপোলিওতে থাকা কোনো আইটেমই নিরাপদ নয়।তাই বাজারের বর্তমান অবস্থা নিয়মিত ট্রেডারদের জন্য অভিশাপ।অপরদিকে যারা আবেগের বশবর্তী না হয়ে কারেকশনের অপেক্ষা করে সুযোগ সন্দ্বানে থেকে মাঝে মাঝে ট্রেড করে তাদের জন্য আপ ডাউন উভয় মার্কেট আশীর্বাদ।তারা কোনো আইটেম ২০%-৩০% কারেকশন হলে কিনে আবার ৫%বাড়লেই বিক্রি করে বসে থাকে।ওই সমস্থ অতিথি ট্রেডারদের কাছে আপ ডাউন উভয় মার্কেটই আশীরবাদ।অর্থাৎ তারা লাভ তুলে নিয়ে বাই ব্যাক করার জন্য বেশী দিন অপেক্ষা করতে হয় না।ফলে মাঝে মধ্যে সুযোগ সন্দ্বানী ট্রেড করলেও ঘন ঘন ট্রেডে অল্প অল্প প্রফিট করে মাস শেষে তারা বিশাল প্রফিট অর্জন করে।মাঝে মাঝে সুযোগ সন্দ্বানে যারা ট্রেড করে তারা ঝুকি ছাড়াই কিনতেও লাভ করে বিক্রি করতেও লাভ করে।যদিও মাঝে মাঝে ট্রেড করা লাভজনক কিন্তু আমাদের দেশের অধিকাংশ ট্রেডারই নিয়মিত ট্রেডার।অর্থাৎ তারা আপ ডাউন উভয় মার্কেটে নিয়মিত ট্রেড করে।ফলে আপ মার্কেটে যেটুকু প্রফিট হয় ডাউন মার্কেটে সেই প্রফিট হাতছাড়া হয়ে উল্টো লোকসানে পরে।যার কারনে নিয়মিত ট্রেডাররা সারা বছর এভারেজ আর লোকসান রিকভার করা নিয়েই ব্যস্ত থাকতে দেখা যায়।উত্তান পতনের বাজারে নিয়মিত ট্রেডাররা ব্যর্থ হয়ে সারা বছরই বাজারকে দোষারোপ করতে দেখা যায়।কেউ কেউ এমনও বলে যে,বাংলাদেশের শেয়ার বাজারে বিনিয়োগ করলে ওয়ারেন বাফেটও সর্বশান্ত হবেন।আসলে তাদের ট্রেডিং সিষ্টেমের কারনে যে সারা বছর লোকসান গুনে সেটা তারা নিজেরাই জানে না।যারা ওয়ারেন বাফেটের সাথে নিজেদের তুলনা করে তাদেরকে বলব যে, শেয়ার ব্যবসার দিশারী ওয়ারেন বাফেট যদি আমাদের শেয়ার বাজারে বিনিয়োগ করতেন তাহলে বিনা পরিশ্রমে অল্প দিনে মিলিয়ন মিলিয়ন টাকা প্রফিট করতেন।কারন ওয়ারেন বাফেট তার দেশে একটা আইটেম থেকে প্রফিট নিয়ে মাসের পর মাস অপেক্ষা করতেন কবে মার্কেট ডাউন হবে আর কম দামে কেনা যাবে।কিন্তু আমাদের দেশে একটা শেয়ার থেকে প্রফিট নিয়ে ২দিন অপেক্ষা করলেই আগের দরের চেয়ে আরো কম দরেই পাওয়া যায়।তাই ওয়ারেন বাফেটের সূত্র ধরে বর্তমান বাজার পরিস্থিতিতে নিয়মিত ট্রেড না করে মাঝে মাঝে ট্রেড করলে বিনা ঝুকিতে লোকসান ছাড়া অধিক মুনাফা অর্জন করা সমভব।এই সুযোগ সন্দ্বানী ট্রেড করে আমি নিজেই একজন পরীক্ষিত সফল ট্রেডার।আমি বিশ্বাস করি যারা ওয়ারেন বাফেটের সূত্র ধরে ট্রেড করবে তারা আপ ডাউন উভয় মার্কেটে টেনশন মুক্ত থাকবে।

Rate This

Average rating 0 / 5. Vote count: 0

No votes so far! Be the first to rate this post.

As you found this post useful...

Follow us on social media!